fbpx

Basics

PLC

VFD

Stepper Motor

HMI

One-line Diagram

ডে-৪ : ডায়াক ও ট্রায়াক দিয়ে সুইচিং সার্কিট তৈরি করণ।

ডে-৪: ডায়াক ও ট্রায়াক দিয়ে সুইচিং সার্কিট তৈরি করণ।

উদ্দেশ্যঃ

এ প্রজেক্ট এর মাধ্যমে আমরা দেখব যে, ডায়াক ও ট্রায়াক ব্যবহার করে কিভাবে একটা সুইচিং সার্কিট তৈরী করা যায় এবং কিভাবে আউটপুট কে কন্ট্রোল করা যায়।

প্রজেক্ট তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় কম্পনেন্ট সমূহঃ

১. এলইডি
২. ডায়াক
৩. ট্রায়াক
৪. রেজিস্টর
৫. পুশ বাটন

সার্কিট ডায়াগ্রামঃ

কার্যপ্রণালীঃ

চিত্রে একটি ট্রায়াক এর মাধ্যমে এসি সুইচিং সার্কিট দেখানো হয়েছে। এখানে ট্রায়াক হিসেবে bt136 এবং ডায়াক Db3 ব্যবহার করা হয়েছে।

এখানে এসি নিউট্রাল টার্মিনালের সাথে লোডের এক প্রান্ত এবং অপর প্রান্ত কে মেইন টার্মিনাল ১ এর সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে। এসি ফেজ টার্মিনাল কে মেইন টার্মিনাল ২ এর সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে।

গেট টার্মিনালকে ডায়াক এর মাধ্যমে একটি সুইচ এর মাধ্যমে এসি ফেজ টার্মিনাল এর সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে। ফলে যখন সুইচ টি অন করা হবে, তখন আউটপুট বা লোডটি অন হবে।

কম্পনেন্ট সম্পর্কে ধারনাঃ

ট্রায়াকঃ

ট্রায়াক অন্যান্য ট্রানজিস্টর এর মতো একটি সুইচিং ডিভাইস । ট্রায়াক 5 লেয়ার বিশিষ্ট সেমিকন্ডাক্টর ম্যাটেরিয়াল দ্বারা তৈরি সুইচিং ডিভাইস। এর তিনটি টার্মিনাল ( যথাঃ মেইন টার্মিনাল ১, মেইন টার্মিনাল ২ এবং গেট থাকে।ট্রায়াক এর পূর্ণ নাম ট্রায়োড ফর অল্টারনেটিং কারেন্ট (Triode for Alternating Current) । এটি একটি বাইডাইরেকশনাল সুইচ যা দুটি SCR এর সমন্বয়ে গঠিত।

ট্রায়াক সাধারণত পাওয়ার ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস হিসেবে, উচ্চ শক্তি সম্পন্ন ল্যাম্প সুইচ হিসেবে, ইলেকট্রনিক্স সার্কিটের মাধ্যমে পাওয়ার ট্রান্সফরমারের ট্যাপ চেঞ্জিংএ, টাইম ডিলে রিলে সার্কিটে, আর্ক ওয়েল্ডিং এ কারেন্ট নিয়ন্ত্রণ হিসাবে ব্যবহার করা হয়।

ট্রায়াক মূলত অন্যান্য ট্রানজিস্টর এর মতই কাজ করে। তবে মজার বিষয় হচ্ছে যে, ট্রায়াক কে এসি তথা অল্টারনেটিং কারেন্ট এবং ডিসি তথা ডাইরেক্ট কারেন্ট উভয় এর মাধ্যমে সুইচিং করানো যায়। নিম্নের চিত্রের মাধ্যমে ট্রায়াক এর প্রতীক ও গঠন দেখানো হলোঃ

চিত্রঃ ট্রায়াক এর গঠন ও প্রতীক

ট্রায়াক এর কার্যপ্রণালী:

ট্রায়াক মূলত থাইরিস্টর বা এসিআর এর উপর ভিত্তি করেই কাজ করে। দ্বি-মুখী সুইচিং এর জন্য দুটি SCR কে পরস্পর বিপরীত মুখী সংযোগের মাধ্যমে ট্রায়াক তৈরি হয়েছে ।

ট্রায়াক এসি বা অল্টারনেটিং কারেন্ট কে সুইচিং এর কাজ করে।উল্লেখ্য যে, থাইরিস্টর ডিসি এবং এসি এর হাফ-সাইকেলে কাজ করে ৷ কিন্তু ট্রায়াক এসি (AC) পজেটিভ ও নেগেটিভ উভয় হাফ সাইকেলে কাজ করতে পারে।

মেইন টার্মিনাল ১ (MT1) এবং মেইন টার্মিনাল 2 (MT2) ব্যবহার করা হয় ফেজ এবং নিউট্রাল লাইনে সংযোগের জন্য। অন্যদিকে, Gate ব্যবহার করা হয় ট্রিগারিং এর জন্য। ট্রায়াক এর গেটে গেট পালস দেওয়া হয় তখন গেট অন হয়ে যায় এবং মেইন টার্মিনাল ১ থেকে মেইন টার্মিনাল ২ এর দিকে প্রবাহ শুরু হয় এবং এভাবে আউটপুটকে কন্ট্রোল করা হয়।

ডায়াকঃ

ডায়াক (Diac) হচ্ছে, দুই টার্মিনাল বিশিষ্ট একপ্রকার ট্রিগারিং ডিভাইস। এর পূর্ণ নাম ডায়োড ফর অল্টারনেটিং কারেন্ট ( Diode for alternating current)।এটি মূলত সেমিকন্ডাক্টর ডিভাইস, যা একটি নির্দিষ্ট ব্রেকডাউন ভোল্টেজে পৌঁছালে এটি পরিবাহী হিসাবে কাজ করে ৷

ডায়াকের দুটো টার্মিনালই পরস্পরের মধ্যে ডিরেকশন পরিবর্তন করে উভয় হাফ সাইকেলেই অ্যানোড বা ক্যাথোড হিসেবে কাজ করে ট্রিগার করতে পারে।ডায়াক একা একা কাজ করতে পারে না, এটি মূলত ট্রায়াক কে সুইচিং এর জন্য ব্যবহার করা হয়।

নিম্নে ডায়াক এর গঠন ও প্রতীক চিত্রের মাধ্যমে দেখানো হলোঃ

ডায়াক এর কার্যপ্রণালীঃ

ডায়াক মূলত জেনার ডায়োড এর মত কাজ করে। জেনার ডায়োড এর যেমন ব্রেকডাউন ভোল্টেজ রয়েছে ( যেমনঃ 3.6V, 3.8V এবং 5V ইত্যাদি) তেমনই ডায়াক এর ব্রেকডাউন ভোল্টেজ রয়েছে।

তবে, জেনার ডায়োড শুধু ডিসিতেই কাজ করে। কিন্তু ডায়াক এসি তেও কাজ করতে পারে। আর ডায়াকের ব্রেকডাউন ভোল্টেজ সাধারণত 30 volt এর উপরে হয়।

কিছু জনপ্রিয় ডায়াকের মডেল নম্বর হচ্ছে, DB3, DB4, DB3A, DB6 ইত্যাদি।

error: Alert: Content is protected !!